3:06 pm - Tuesday September 26, 3443

কোরবানির পশুর বর্জ্য ২৪ ঘণ্টার মধ্যে অপসারণ হবে

ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকন বলেছেন, ‘কোরবানীর পশুর বর্জ্য ২৪ ঘন্টার মধ্যে অপসারণ করে ঢাকার মানুষকে একটি বর্জ্যমুক্ত নগরী উপহার দেওয়া হবে।’ ২৯ আগস্ট মঙ্গলবার দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মোহাম্মদ হানিফ মিলনায়তনে দুই সিটি কর্পোরেশন আয়োজিত যৌথ সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন তিনি।
তিনি বলেন, ঈদের দিন দুপুর ২টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ঢাকা দক্ষিণ ও উত্তর সিটি কর্পোরেশন কোরবানির পশু বর্জ্য অপসারণ করবে। বর্জ্য অপসারণে গতি আনতে দুই সিটি কর্পোরেশনের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের ঈদের ছুটি বাতিল করা হয়েছে।
মেয়র বলেন, রাজধানীতে পশু কোরবানির জন্য ১ হাজার ১৭৪টি স্থান নির্ধারণ করা হয়েছে। এর মধ্যে দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনে ৬২৫টি এবং উত্তর সিটি কর্পোরেশনে ৫৪৯টি। পশু জবাইয়ের জন্য এসব স্থানে ১ হাজার ২১৭ জন ইমাম ও কসাই উপস্থিত থাকবেন। এর মধ্যে দক্ষিণে ৬২৫ জন ও উত্তরে ৫৯২ জন।
নির্ধারিত স্থানে পশু কোরবানি করতে নগরবাসীর প্রতি আহবান জানিয়ে তিনি বলেন, নির্ধারিত স্থানে পশু কোরবানি করলে বর্জ্য অপসারণ সহজ হয়। বাড়ির ভেতরে কোরবানি করলেও নির্ধারিত ব্যাগে ময়লাগুলো বাইরে এনে রাখার জন্য তিনি অনুরোধ জানান।
কোরবানির পশুর বর্জ্য অপসারণের জন্য দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন আড়াই লাখ চটের ব্যাগ এবং উত্তর সিটি কর্পোরেশন ৪ লাখ ৫৫ হাজার পলিব্যাগ সরবরাহ করবে বলে তিনি জানান।
দক্ষিণের ১৫টি ও উত্তরের ৮টি হাটসহ কোরবানীর পশুর বর্জ্য অপসারণে প্রায় ১৭ হাজার পরিচ্ছন্নতা কর্মী কাজ করবে উল্লেখ করে সাঈদ খোকন বলেন, এবার দুই সিটি কর্পোরেশন এলাকায় প্রায় ৪ লাখ ৭৫ হাজার পশু কোরবানি হতে পারে। এ কারণে ঈদের তিন দিন অতিরিক্ত প্রায় ২৫ হাজার টন বর্জ্য উৎপন্ন হবে। এরমধ্যে দক্ষিণে ১৮ হাজার টন এবং উত্তরে ১০ হাজার টন।
অনুষ্ঠানে ডিএসসিসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা খান মোহাম্মদ বিলাল, ডিএনসিসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাস্মদ মেসবাহুল ইসলাম, ডিএসসিসির প্রধান বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা কমডোর শফিকুল আলম ও ডিএনসিসির প্রধান বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা কমডোর আব্দুর রাজ্জাক উপস্থিত ছিলেন।

Filed in: জাতীয়
[X]